মেনু নির্বাচন করুন

যশোর শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রম,যশোর সদর,যশোর

যশোর রেলস্টেশনের নিকটবর্তী প্রায় পাঁচ বিঘা জমির উপর এক নির্জন ও শান্ত পরিবেশে যশোর শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রমটি অবস্থিত। যশোরের কৃতি সন্তান স্বামী সুধানন্দজী ইংরাজী ১৯৩৬ খৃষ্টাব্দে এটি স্থাপন করেন।স্বামীজীর পিতার নাম কালিদাস মুখার্জী এবং মাতার নাম শ্রীমতি সিদ্ধেশ্বরী দেবী। ১৩০৮ সালের ২৪শে অগ্রহায়ণ নিষ্ঠাবান ব্রাহ্মণপরিবারে এক সুন্দর কান্তিশিশু জন্ম গ্রহণ করে। সংসারত্যাগ করে দীক্ষা নিয়ে একদা স্বামী সুধা নন্দ নাম ধারণ করেন।স্বামী সুধানন্দজী যশোর রেলষ্টেশনের সন্নিকটে“ শ্রীরামকৃষ্ণআশ্রম” প্রতিষ্ঠাকরেএখানেইসারাজীবনইষ্টসাধানায়ব্যাপৃতথাকেন।পার্শ্ববর্তীঅঞ্চলেরছেলেরাতাঁরকাছেএলেতিনিআদরকরতেনএবংতাদেরশিক্ষাদেবারজন্য১৯৪০সালেএকটিপ্রাথমিকবিদ্যালয়গোড়েতোলেন।তাঁরমধুরব্যবহারেআকৃষ্টহয়েধীরেধীরেছাত্র-ছাত্রীরসংখ্যাবৃদ্ধিপেতেথাকলেপ্রাথমিকবিদ্যালয়টিযশোরমিউনিসিপ্যালিটিরহাতেস্বামীজীরতুলেদেনএবংবর্তমানেবিদ্যালয়টিবিদ্যালয়টিসরকারীরামকৃষ্ণআশ্রমপ্রাথমিকবিদ্যালয়নামেপরিচিত।
যশোরশ্রীরামকৃষ্ণআশ্রমেরসুদৃশ্যমন্দিরেশ্রীরামকৃষ্ণদেবেরএকটিমর্মরমূর্তিপ্রতিষ্ঠিতছিল।যা১৯৭১সালেবাংলাদেশেরমুক্তিযুদ্ধেরসময়স্বাধীনতাবিরোধীদেরহাতেধ্বংসহয়।ঠাকুরঘরেরপার্শ্বেযেশিবমূর্তিপ্রতিষ্ঠিতআছেতারাজাবিক্রমাদিত্যেররাজবাড়ীতেপূজিতহোত।ঠাকুরঘরেরঅপরপার্শ্বেআশ্রামেরপ্রক্তনসম্পাদকশ্রীঅজিতকুমারঘোষেরঅর্থেরাধাগোবিন্দমন্দিরপ্রতিষ্ঠিতআছে।রাধা-গোবিন্দমন্দিরেরদক্ষিণপার্শ্বেদুর্গামন্ডপটিএকদাস্বামীতারানন্দজীরভগ্নিসরোজিনীদেবীরঅর্থেনির্মিতহয়েছিল, যাকালেরআবর্তনেভগ্নপ্রায়হলেযশোরেরঅন্যতমব্যবসায়ীওসমাজসেবকবাবুস্বপনভট্রাচার্যওতদীয়পত্নীশ্রীমতিতন্দ্রাভট্টাচার্যেরআর্থিকসহায়তায়সম্প্রতিএকটিসুদৃশ্যদুর্গামন্দিরনির্মিতহয়েছে।সন্ন্যাসীদেরবিশ্রামেরজন্যেপূর্ব-পশ্চিমেলম্বাটিনেরঘরওউত্তর-দক্ষিণেলম্বাটালিরঘরছিল।এখনতাআরসেখানেনেইতবেসেখানেপূর্বনির্মিতস্বামীসুধানন্দজীরসাধনকুঠিআজওবর্তমান।এরচূড়ায়লেখাসিদ্ধেশ্বরীস্মৃতিমন্দির-১৩৪৮।দরিদ্রছাত্রদেরবাসস্থানসমস্যাশহরেবড়একটিসমস্যা।এইসমস্যাদূরীকরণেশ্রীচিত্তরঞ্জনসাহামহাশয়, ডাঃগৌতমসাহাএবংশ্রীসাধনকুমারচন্দ্রতাদেরস্বস্বপিতারনামেএকটিবৃহৎছাত্রাবাস১৯৮৬সালেনির্মাণকরেন।পরবর্তীকালেআশ্রমেরস্বীয়তহবিলথেকেছাত্রাবাসেরদ্বিতীয়তলানির্মাণকরাহয়।১৯৮৫সালেছাত্রাবাসটিরভিত্তিপ্রস্তরস্থাপনকরেনবেলুড়মঠেরদ্বাদশঅধ্যক্ষশ্রীমৎস্বামীভূতেষানন্দজীমহারাজ।

কিভাবে যাওয়া যায়:

দড়াটানা থেকে ইজিবাইক অথবা রিক্সা যোগে রেলগেটে যশোর শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রমে যাওয়া যায়।


Share with :

Facebook Twitter